RAM কি | র‍্যামের কাজ কি | ফ্রিতে র‍্যাম দ্বিগুণ | মানে ৪ জিবি র‍্যামকে ৮ জিবি করুন

র‍্যাম হলো আপনার কম্পিউটার বা আপনার কম্পিউটিং ডিভাইজের এমন একটি মেমোরি যা অনেক ফাস্ট হয়ে থাকে এবং এর কাজ হলো সকল কাজের ফাইল গুলোকে প্রসেসর পর্যন্ত খুবই দ্রুত সার্ভ করা। [ র‍্যাম সম্পর্কে বিস্তারিত ] আপনার যদি কখনো মনে হয় যে আপনার একটি খুব ইম্পরট্যান্ট কাজ করার জন্য অতিরিক্ত RAM লাগবে কিন্তু এই মুহূর্তে নতুন RAM আপগ্রেড করা সম্ভব না তাহলে আপনি এই কৌশল গুলো অনুসরণ করতে পারেন RAM বৃদ্ধি করতে। এই পদ্ধতিতে আপনি আপনার RAM কে ডাবল করে নিতে পারেন খুব সহজেই। আর হ্যাঁ, এই RAM ডাবল করতে কোন টাকা লাগে না অর্থাৎ ফ্রিতে ডাবল ক্যাপাসিটির RAM পেয়ে যাচ্ছেন। চলুন তাহলে কৌশলটি দেখে নিই যেভাবে ফ্রিতে RAM ডাবল করে নিবেন। ডাবল মানে, বর্তমানে আপনার যদি পিসিতে ১৬ জিবি র‍্যাম থেকে থাকে তাহলে অপ্টিমাইজেশন প্রক্রিয়ার পর তা ৩২ জিবি হয়ে যাবে। ভাবছেন এটাও কি সম্ভব? তা দেখুনই না।

তো আমি যে পিসিতে এই পদ্ধতিটি পরীক্ষা করতে যাচ্ছি প্রথমেই দেখে নিই কতটুকু র‍্যাম আছে এতে। নিচের চিত্রে দেখতে পাচ্ছেন ১৬ জিবি। তো চলুন দেখি কতটুকু বাড়ানো যায়।

RAM কি

প্রথমে আপনাকে কমান্ড প্রম্পট চালু করে নিতে হবে। আপনি উইন্ডোজ স্টার্ট মেনু বারের সার্চ অপশনে cmd লিখে এই কমান্ড প্রম্পট পেতে পারেন। এখন আপনি cmd এর উপর রাইট বাটন ক্লিক করে run as administrator হয়ে প্রবেশ করুন।

CMD টিপস

কমান্ড প্রম্পট অংশে প্রবেশ করে এখন কমান্ড হিসেবে লিখুন chkdsk /f  তারপর এন্টার চাপুন। এন্টার প্রেস করার পর কমান্ড প্রম্পট আপনার কাছে জানতে চাইবে আপনি কখন ডিস্ক চেক করতে চান। y লিখে কমান্ড দিলে আপনার পিসি যখন রিস্টার্ট নিবে তখন ডিস্ক চেক এর কাজটা করে নিবে। সেহেতু y লিখে এন্টার চাপুন। আর হ্যাঁ, অবশ্যই রিস্টার্ট দেয়ার আগে আপনার রানিং কোন কাজ থাকলে তা সেভ করে নিন। ডিস্ক চেক করতে ১০-১২ মিনিট সময় লাগতে পারে প্রায়। তারপর পিসিটিকে রিস্টার্ট দিয়ে দিন।

উইন্ডোজ মেমোরি ডায়াগনিস্টিক সেটিংস

ফ্রি র‍্যাম আপগ্রেড

রিস্টার্ট সম্পন্ন হওয়ার পর এখন আপনার পিসির মেমোরি ডায়াগনিস্টিক সেটিং থেকে মেমোরি প্রবলেম চেকিং মোডে যেতে হবে। এই জন্য প্রথমে উইন্ডোজে ক্লিক করে অল এপসে যান। তারপর স্ক্রোল করে windows administrative tools এ ক্লিক করে নিচে গিয়ে ক্লিক করুন windows memory diagnostic অংশে ক্লিক করুন। এখন আপনি একটি নতুন উইন্ডো দেখতে পাবেন যেখানে লিখা আছে restart now and check for memory problems এতে ক্লিক করে আপনার পিসিকে রিস্টার্ট করে দিন।

র‍্যাম আপগ্রেড কি সম্ভব

এটা রিস্টার্ট হয়ে মেমোরি চেক করা শুরু করে দিবে।

মেমোরি চেকিং সেটিংস

Ram এর কাজ কি

মেমোরি চেকিং অংশে বায়োস টাইপের একটি মেন্যু পাবেন। এখানে আপনার মাউস কোন কাজ করবে না। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই, কিবোর্ড থেকে F1 প্রেস করলেই অপশন পেয়ে যাবেন।

টেস্ট মিক্সট সেটিংস

র‍্যাম ডাবল করার নিয়ম

প্রথমেই Text mix অংশে তিনটা অপশন পাবেন। যদি বেসিকে প্রেস করেন তো এটা কোন কাজে আসবে না। অর্থাৎ আপনার RAM মেমোরি যেমন ছিলো তেমনই থাকবে জাস্ট RAM হেলথ চেক করবে। যদি স্ট্যান্ডার্ড অপশনে প্রেস করেন তাহলে আপনার পিসির RAM সামান্য বৃদ্ধি পাবে। তবে আমরা সামান্য অপ্টিমাইজ এখানে করব না। সুতরাং, আমরা এক্সটেন্ডেড অংশে প্রেস করবো। এক্সটেন্ডেড করলে RAM মেমোরি প্রচুর অপ্টিমাইজ হয়ে বৃদ্ধি পাবে। কিবোর্ড থেকে এক্সটেন্ডেড অংশ সিলেক্ট করে TAB প্রেস করে নেক্সট অংশে চলে যান। Cache অপশনে অন / অফ / ডিফল্ট এই তিনটি অপশন পাবেন কিন্তু এগুলোর মধ্যে ডিফল্ট অপশনটিই বেশি ফাস্ট কাজ করে। তাই ডিফল্ট সিলেক্ট করে TAB চেপে নেক্সট অংশে চলে যান। তাহলে Pass count অপশনে চলে যাবে। এখানে আপনার নির্ধারণ করতে হবে যে RAM মেমোরি কত টুকু বর্ধিত করবেন। এখানে ০-১৫ পর্যন্ত পাস কাউন্ট দেয়া যায় সর্বোচ্চ। আপনি যত বেশি পাস কাউন্ট দিবেন ততো বেশি RAM মেমোরি বৃদ্ধি পাবে। সুতরাং, ডিফল্ট ভাবে থাকা ২ পালটিয়ে ১৫ করে দিন। F10 প্রেস করে প্রসেসিং করতে দিন এইবার। এই প্রক্রিয়া ১৫ টি ধাপে শেষ হতে প্রায় ৩ ঘন্টার মত লাগতে পারে। তাই আমি সাজেস্ট করবো রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে এই কাজটি করুন। সকালে ঘুম থেকে উঠে ম্যাজিক দেখবেন ইনশাআল্লাহ্‌।

ম্যাজিক ফলাফল

Free Ram Upgrade

সমস্ত কাজ শেষে আপনি এখন দেখে নিতে পারেন আপনার কাজ সঠিক ভাবে সম্পন্ন হয়েছে কি না। এই জন্য উইন্ডোজ স্টার্ট মেনূ বারে সার্চ অপশনে লিখুন event viewer তারপর windows logs এ ক্লিক করে সিস্টেমে প্রবেশ করুন। এখানে event diagnostic result এ রাইট বাটন ক্লিক করে প্রোপার্টিজ এ প্রবেশ করে যদি ফলাফল Pass দেখতে পান তাহলে বুঝবেন আপনি সাক্সেস।

এখন আপনার ডেস্কটপের মাই কম্পিউটার বা দিস পিসিতে রাইট ক্লিক করে পোপার্টিজে গিয়ে দেখে নিন আপনার পিসির RAM ডাবল হয়েছে কি না।

র‍্যাম বাড়ানোর কৌশল

দেখতে পাচ্ছেন আমার র‍্যাম ডাবল হয়ে গেছে। যদি আপনারও ডাবল হয়ে থাকে তাহলে আমাকে মিষ্টি খাওয়াতে হবে না কিংবা ধন্যবাদও দিতে হবেনা, শুধু এই অসাধারণ প্রক্রিয়াটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন যাতে তারাও উপকৃত হতে পারে। আজকের পোস্টটি কেমন লাগলো তা অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। কোন সমস্যা বা প্রশ্ন থাকলে নিচের মন্তব্য করে জানাতে পারেন।

উপরোক্ত বিষয়টি পছন্দ হলে লাইক দিন, উপকারী মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।

comments

S.M. Sojib Ahmed

উপরোক্ত আর্টিকেলটি লিখেছেন | Email: smsojibahmed@gmail.com | Facebook: https://www.facebook.com/sojib.ahemed.5