পাসওয়ার্ড মনে রাখতে পারেন না? তাহলে এই নিন LastPass পাসওয়ার্ড ম্যানেজার

LastPass এটি একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার। অনলাইন জগৎ, একটি বিশাল জগৎ যেখানে আপনি আপনার দৈনন্দিন জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সময় অতিবাহিত করে থাকেন। অনলাইনে আপনি যখন জীবনের একটা বড় সময় দিচ্ছেন বিভিন্ন কাজে তখন স্বাভাবিক ভাবেই বলব যে, আপনার এই অনলাইন জগতে একাধিক আইডি রয়েছে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে/ ব্লগে। বর্তমান সময়ে আপনি একজন নিয়মিত অনলাইন ব্যবহারকারী তার মানে আপনার একটি বা একাধিক ফেসবুক আইডি, টুইটার, লিংডইন, ইন্সট্রাগ্রাম, জিমেইল, ইয়াহু, বিভিন্ন ওয়েবসাইট, পোর্টাল এমনকি ব্যাংক হিসাবের আইডিও থাকতেই পারে। আর বর্তমানে অনলাইন অপরাধ হ্যাকিং এর মত সমস্যা গুলো বেড়ে যাওয়ায় নিশ্চই আপনি আপনার আইডি গুলোর পাসওয়ার্ড স্ট্রং করতে ৮ এর অধিক সংখ্যা/ অক্ষর ব্যাবহার করে থাকেন। সেই সাথে  প্রতিটা আইডির অবশ্যই পাসওয়ার্ড গুলো একটির সাথে অন্যটি ভিন্নতা রাখেন কেননা একটি আইডি যদি হ্যাক হয়ে যায় তাহলে বাকি গুলোও আক্রান্ত হয়ে যেতে পারে।

আরো পড়ুন: ৫টি সেরা পাসওয়ার্ড ম্যানেজার | পাসওয়ার্ড মনে রাখার ঝামেলা থেকে মুক্তি নিন

২০১৬ সালের জরীপ মতে ১২৩৪৫৬ হলো সবচেয়ে দুর্বল কমন পাসওয়ার্ড। এখন এই ব্যস্ত জীবনে আমরা এতো এতো কাজের চাপে থেকে কিভাবে এতো গুলো আইডির পাসওয়ার্ড মনে রাখবো তাইতো? স্বাভাবিক ভাবেই এগুলো মনে রাখা সত্যি কষ্টকর। এই সমস্যা সমাধানের জন্য আপনাদের আজ একটি সুখবর জানাব। lastpass এটি একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজার। এটি ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার যত গুলো ইচ্ছে আইডির পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ করে রাখতে পারবেন। অর্থাৎ আপনি যখন কোন ওয়েবসাইটে লগিন করতে যাবেন তখন আপনাকে কষ্ট করে ইউজার নেম, ইমেইল কিংবা পাসওয়ার্ড কিছুই মনে রাখতে হবে না। সেই সাথে আপনার পাসওয়ার্ড গুলো থাকবে নিরাপদ এবং এই পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করে আপনাকে সব গুলো আইডির পাসওয়ার্ড মনে রাখার দরকার পড়বে না বরং একটি মাত্র মাস্টার পাসওয়ার্ড মনে রাখলেই চলবে। এমনকি আপনার যদি মনে হয় এই মাস্টার পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন বা সমস্যা হয়েছে তাহলে খুব সহজেই পরিবর্তন করে নিতে পারবেন। আর সবচেয়ে মজার সংবাদটি হলো এই পাসওয়ার্ড ম্যানেজারটি একদম ফ্রি! তবে আপনি চাইলেই এটা মাসিক ভিত্তিতে ক্রয় করে কিছু অতিরিক্ত সুবিধা পেতে পারেন। যাইহোক তাহলে বুঝলেন তো এটি আপনার কতটা মাথার চাপ কমিয়ে দিচ্ছে। আচ্ছা চলুন একটু বিস্তারিত জেনে নিই ঠিক কি কি কারনে আমি আপনাদের এই পাসওয়ার্ড ম্যানেজার ব্যবহার করতে বলছি,

নিরাপত্তা এবং সমস্যায় উদ্ধারকারী হিসেবে

lastpass একটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার বিজয়ী পাসওয়ার্ড ম্যানেজার যা আপনার অনলাইন আইডি, মোবাইল ডিভাইস, কম্পিউটারের নিরাপত্তাইয় বিশ্বস্ততার সাথে পরিচয় বহন করে আসছে। এর মাধ্যমে আপনি নিশ্চিন্তে অ্যাকাউন্ট গুলোতে এক্সেস করতে পারেন। এর সবচেয়ে বড় সুবিধা গুলোর মধ্যে একটি হলো lastpass এর জন্য মাত্র একটি মাস্টার পাসওয়ার্ড মনে রাখতে হয় এর পর অন্যান্য পাসওয়ার্ড ম্যানেজার গুলোর মত অন্যান্য পাসওয়ার্ড এটি নিজে থেকেই নিরাপত্তা দিয়ে সংরক্ষণ করে থাকে। LastPass আপনাকে আপনার পাসওয়ার্ডগুলি এবং অন্যান্য ডেটা নিরাপদে আস্থার সাথে AES-256 এনক্রিপশনের সাথে সুরক্ষিত করার অনুমতি দেয়।  বিনামূল্যের এবং প্রিমিয়াম সংস্করণগুলি টু-স্টেপ-ভেরিফিকেশন সাপোর্টেড, তাই এটি আপনার অ্যাকাউন্টগুলি অনলাইনে সুরক্ষিত রাখার একটি খুব নিরাপদ উপায়। কিছু ব্যবহারকারী এবং সমালোচক এর ডেস্কটপ অ্যাপ্লিকেশনের অভাবের সমালোচনা করেছে কারণ LastPass প্রাথমিকভাবে একটি ওয়েব ব্রাউজারের এক্সটেনশন (গুগল ক্রোম, মজিলা ফায়ারফক্স, উইন্ডোজ এজ) হিসাবে বিদ্যমান। তবে আমি মনে করি এই সমালোচনা তেমন ইফেক্টিভ না কারণ এর দ্বারা পর্যাপ্ত সুবিধা গ্রহণ করা সম্ভব।

সব অপারেটিং সিস্টেম এবং ব্রাউজারে কার্যোপযোগী

Cross platform synchronization এর ক্ষেত্রে এটি সত্যি সন্তোসজনক। LastPass আমার সমস্ত উইন্ডোজ, ম্যাক, আইওএস, অ্যান্ড্রয়েড এবং এমনকি লিনাক্স ডিভাইসে কাজ করেছে। তবে এটি ক্লাউড স্টোরেজের ক্ষেত্রে কাজ করেনা, আসলে একটা জিনিস সব ক্ষেত্রেই সর্ব সেরা হবে এমনটা নয়। তাই ক্লাউডের ক্ষেত্রে আমি তেমন অবাক হই নি।

LastPass প্রায় সব ব্রাউজার কাজ করে। সম্প্রতি উইন্ডোজ, ম্যাক এবং লিনাক্সে চালানো গুগল ক্রোম, মোজিলা ফায়ারফক্স, অ্যাপল সাফারি, মাইক্রোসফট এজ, মাইক্রোসফ্ট ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার এবং অপেরা জন্য এক্সটেনশন বিদ্যমান। এক্সটেনশনের সমস্ত ডাউনলোড এবং ইন্সটল দ্রুত এবং সিস্টেমের বা ব্রাউজারের কর্মক্ষমতাকে কোন প্রকারের প্রভাবিত করেনা।

আমার ভাবনা

অনেক পাসওয়ার্ড ম্যানেজার রয়েছে যেগুলোতে ফেস আইডেন্টিফায়ার রয়েছে,  আবার কিছু কিছু রয়েছে ভয়েস লক/ আইরিস লক ইত্যাদি। কিন্তু LastPass এর বৈশিষ্ট্য হলো একটি মাস্টার পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা এবং সেই সাথে এই সিস্টেমকে নিয়োমিত আপডেট করে আরো শক্তিশালী করা। এটা খুব নিখুত ভাবে কাজ গুলো সম্পাদন করে থাকে। LastPass একটি ফ্রী পাসওয়ার্ড ম্যানেজিং সার্ভিস। তবে আপনি চাইলে $12 premium version খরচ করেও চালাতে পারেন এতে কিছু এক্সট্রা ফিচার পেটে পারেন। তবে সব কিছুই ফ্রীতেই পাওয়া যায়। LastPass এর লিংকটা এখানে দিলাম , আপনারা যারা ব্যাবহার করবেন বলে ভাবছেন তারা দেখে আসতে পারেন। আর যেকোনো সমস্যা কিংবা LastPass কেমন লাগলো তা কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না।

উপরোক্ত বিষয়টি পছন্দ হলে লাইক দিন, উপকারী মনে হলে অন্যদের সাথে শেয়ার করুন।

comments

S.M. Sojib Ahmed

উপরোক্ত আর্টিকেলটি লিখেছেন | Email: smsojibahmed@gmail.com | Facebook: https://www.facebook.com/sojib.ahemed.5